রোববার   ২৮ নভেম্বর ২০২১

সর্বশেষ
শ্রীনগরে আর্থিক কষ্টে মৃৎশিল্পীরা সিরাজদিখানে হাজারো মানুষের ভরসা বাঁশের সাঁকো টঙ্গিবাড়ী উপজেলা ছাত্রদলের পক্ষ থেকে চলছে দোয়া ও বৃক্ষরোপন কর্মসূচী ঝুঁকি নিয়েই ঢাকায় ফিরছে মানুষ উৎসবানন্দে নিঃশঙ্ক চিত্ত জেলার সর্ববৃহৎ বালিগাঁও বাজারে মানুষের উপচে পরা ভির মে পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হতে পারে ৫০ হাজার মানুষ জেলায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমিত মুন্সীগঞ্জে চঙ্গ তৈরি করার কারনে পুরো একটি গ্রামের নাম পরিবর্তন কোভিড-১৯ মোকাবেলা চ্যালেঞ্জিং, তবে অসম্ভব নয় - মোঃ শফিকুল ইসলাম জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেবা দিচ্ছেন সংবাদকর্মীরাঃ মৃনাল কান্তি দাস প্রকৃত জনপ্রতিনিধি হিসেবে প্রতীয়মানের এখনই সুযােগঃআবু বকর সিদ্দিক শ্রীনগরে নার্সারীতে বাহারী আমের বাম্পার ফলন বসল পদ্মা সেতুর ২৯তম স্প্যানঃ দৃশ্যমান ৪ হাজার ৩৫০ মিটার করোনা ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছে যে সকল গণমাধ্যমকর্মীরা.. জেলার ৭৪টি হিমাগার ৪০ ভাগ ফাঁকা-৮০০ কোটি টাকা লোকসানের শঙ্কা ধেয়ে আসছে কালবৈশাখী ঝড় মুন্সীগঞ্জে বর্ষা মৌসুম সামনে রেখে চলছে চাঁই তৈরীর ধুম ২ মিনিটেই মারা যাবে করোনা ভাইরাস নজরদারি বৃদ্ধি করতে বলা হয়েছেঃ পৌর মেয়র বিপ্লব মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কঠোর নির্দেশনা ৯৮ সালে প্রলয়ংকারী বন্যা মোকাবেলার দৃষ্টান্ত তুলে ধরলেনঃমহিউদ্দিন মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার প্রতিদিন জীবানু নাশক পনি ছিটান অব্যাহত গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মারা যাওয়া সবাই ঢাকার আড়িয়ল বিলের মিষ্টি কুমড়া সবচেয়ে সেরা জেলা শহরের বিভিন্ন সড়ক ফাঁকা মুন্সীগঞ্জে আওয়ামী লীগসহ প্রশাসনের নানা আয়োজন মধুচাষে লোকসান টঙ্গীবাড়ীতে ১০০ ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে মেধাবৃত্তি প্রদান টিসিবি`র পিয়াজ বিক্রি করতে হেলমেট পরতে হয় না
৩১

গান দিয়ে শুরু করলেও তার সাফল্যের জায়গাটি হয়তো প্রযোজনায়

প্রকাশিত: ১৩ নভেম্বর ২০২১  

সংস্কৃতি ডেস্ক-
১৯৯২ সালে বড় ভাই আবুল কালাম আজাদ যিনি ছিলেন বাংলাদেশের বেতার ও টেলিভিশনের জাতীয় শিল্পী। তার সাথে কুমিল্লায় একটি অনুষ্ঠানে যাই এবং সেখানে ” আমার সারাদেহ খেয়োগো মাটি” গানটি পরিবেশন করি। গানটা গাওয়ার পর একটা আত্মতৃপ্তি পাই। আর সেখান থেকেই সাংস্কৃতিক প্রাঙ্গনের প্রতি আগ্রহ জাগে। পরবর্তীতে চিত্রশিল্পী ওস্তাদ আবুল হাই এর কাছ থেকে গানের তালিম নেই। এর পরে গান শিখি ওস্তাদ দেলোয়ার হোসেন’র কাছ থেকে। ঢাকা বুলবুল একাডেমিতেও গানের উপর কোর্স করি। গান করেছি বহু জায়গায়। এভাবেই কথাগুলো  বলেছিলেন বিরহী মোক্তার দৈনিক মুন্সীগঞ্জের খবর’র সংস্কৃতিক ডেস্ককে। 
বিরহী মোক্তার আরোও জানান, তিনি একাধারে গায়ক, অভিনেতা ও প্রযোজক। তিনি বেশ কিছু নাটকে প্রযোজনা ও অভিনয় করেছে। ২০১২ সালে বিরহী মোক্তার প্রযোজিত জি. এম সৈকত পরিচালিত  নাটক “কলাপাতার ঘর” সম্পন্ন হয় যা ২০১৩ সালে মাছরাঙ্গা টেলিভিশনে সম্প্রচারিত হয়েছিল। তার প্রযোজিত নাটকের সংখ্যা অনেক। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্যঃ আফরান নিশো ও সারমিন ফারজানা অভিনিত “আরটিষ্ট মজনু খা”। যা ২০১৬ সালে মাছরাঙ্গা টেলিভিশনে বর্ষসেরা নাটক হিসেবে নির্বাচিত হয়। তার আরো একটি প্রযোজিত আলোচিত নাটক হচ্ছে “গল্পটা তোমারই” এই নাটকটিতে প্রধান চরিত্রে ছিলেন অপূর্ব ও মেহজাবিন। নাটকটি এনটিভিতে সম্প্রাচরিত হয়েছিল।  এছারাও তার প্রযোজিত আরো নাটকগুলোর মধ্যে; “ফিরবে ভাবিনী, শেষ বিকেলের উষার আলো, চিরকুটের শব্দ, ৬ পর্বের ধারাবাহিক নাটক খায়েস, দায়িত ইত্যাদি। ‘দায়িত্ব’ নাটকটি কাঠমুন্ডুতে শুটিং হয়েছিল। 
বিরহী মোক্তার বাংলাদেশ ডিজিটাল প্রোগ্রাম প্রডিউসার এন্ড টেলিভিশন এসোসিয়েশনস অফ বাংলাদেশের ঢাকা দক্ষিণ জোনের একমাত্র তালিকাভুক্ত প্রযোজক। তিনি ২০২০ সালে “বিরহী মাল্টিমিডিয়া” নামক একটি চ্যানেল দ্বারা ইউটিউবে যাত্রা শুরু করেন। তার এই চ্যানেল দ্বারা ইউটিউব এ সম্প্রচারিত তার প্রযোজিত নাটকগুলো হল; পেত্যা ভাইয়ের বিবাহ বিভ্রাট, কিউটিপাই, হ্যাপিনেস, প্রত্যাবর্তন ইত্যাদি। বিরহী মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার বিরহী মোক্তার বলেন,  আমি চাই মুন্সীগঞ্জ থেকে এমন কিছু শিল্পী তৈরী করতে বা খুঁজে বের করতে যারা সারা বাংলাদেশের মুখ উজ্জল করবে। আমার বিশ্বাস মুন্সীগঞ্জে এমন কিছু ছেলে মেয়ে আছে তাদের সুযোগ দিলে ভবিষ্যতে ভালো মানের অভিনেতা/ অভিনেত্রী হতে পারবে। আমি চাই মুন্সীগঞ্জের যে কোন ছেলে মেয়ে প্রতিষ্ঠিত হোক। আমার কাছে আসলে আমি সর্বদা তাদের সহযোগিতা এবয় পাশে থাকার চেষ্টা করবো।  
বিরহী মোক্তার মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার মুক্তারপুরের ডিঙ্গাভাঙ্গা গ্রামের ছেলে। তিনি বর্তমানে ঢকা শিল্পকলা একাডেমিতে নাট্য প্রাঙ্গনে গানের শিক্ষক।

এই বিভাগের আরো খবর