বুধবার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১

সর্বশেষ
শ্রীনগরে আর্থিক কষ্টে মৃৎশিল্পীরা সিরাজদিখানে হাজারো মানুষের ভরসা বাঁশের সাঁকো টঙ্গিবাড়ী উপজেলা ছাত্রদলের পক্ষ থেকে চলছে দোয়া ও বৃক্ষরোপন কর্মসূচী ঝুঁকি নিয়েই ঢাকায় ফিরছে মানুষ উৎসবানন্দে নিঃশঙ্ক চিত্ত জেলার সর্ববৃহৎ বালিগাঁও বাজারে মানুষের উপচে পরা ভির মে পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হতে পারে ৫০ হাজার মানুষ জেলায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমিত মুন্সীগঞ্জে চঙ্গ তৈরি করার কারনে পুরো একটি গ্রামের নাম পরিবর্তন কোভিড-১৯ মোকাবেলা চ্যালেঞ্জিং, তবে অসম্ভব নয় - মোঃ শফিকুল ইসলাম জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেবা দিচ্ছেন সংবাদকর্মীরাঃ মৃনাল কান্তি দাস প্রকৃত জনপ্রতিনিধি হিসেবে প্রতীয়মানের এখনই সুযােগঃআবু বকর সিদ্দিক শ্রীনগরে নার্সারীতে বাহারী আমের বাম্পার ফলন বসল পদ্মা সেতুর ২৯তম স্প্যানঃ দৃশ্যমান ৪ হাজার ৩৫০ মিটার করোনা ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছে যে সকল গণমাধ্যমকর্মীরা.. জেলার ৭৪টি হিমাগার ৪০ ভাগ ফাঁকা-৮০০ কোটি টাকা লোকসানের শঙ্কা ধেয়ে আসছে কালবৈশাখী ঝড় মুন্সীগঞ্জে বর্ষা মৌসুম সামনে রেখে চলছে চাঁই তৈরীর ধুম ২ মিনিটেই মারা যাবে করোনা ভাইরাস নজরদারি বৃদ্ধি করতে বলা হয়েছেঃ পৌর মেয়র বিপ্লব মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কঠোর নির্দেশনা ৯৮ সালে প্রলয়ংকারী বন্যা মোকাবেলার দৃষ্টান্ত তুলে ধরলেনঃমহিউদ্দিন মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার প্রতিদিন জীবানু নাশক পনি ছিটান অব্যাহত গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মারা যাওয়া সবাই ঢাকার আড়িয়ল বিলের মিষ্টি কুমড়া সবচেয়ে সেরা জেলা শহরের বিভিন্ন সড়ক ফাঁকা মুন্সীগঞ্জে আওয়ামী লীগসহ প্রশাসনের নানা আয়োজন মধুচাষে লোকসান টঙ্গীবাড়ীতে ১০০ ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে মেধাবৃত্তি প্রদান টিসিবি`র পিয়াজ বিক্রি করতে হেলমেট পরতে হয় না
৩৫

শ্রীনগরে সেতুর মুখে মাটি ভরাট; পানি প্রবাহ বন্ধ

প্রকাশিত: ৭ সেপ্টেম্বর ২০২১  

মীর রাতুল:

শ্রীনগর উপজেলার শ্যামসিদ্ধি ইউনিয়নের গাদিঘাটের তালুকদার বাড়ি সংলগ্ন সড়কের ওপর একটি গুরুত্বপূর্ণ সেতুর মুখ আটকিয়ে মাটি ভরাট করা হয়েছে। এতে করে পানি প্রবাহের রাস্তা বন্ধ হয়ে পড়ায় শত শত কৃষি জমি জলাবদ্ধতার আশঙ্কা করা হচ্ছে। মাটি ভরাটের কারণে একদিকে যেমন পানি চলাচল বন্ধ হয়েছে। অপরদিকে সেতুটির রেলিং ও সড়কের অতিরিক্ত জায়গা দখল করে ব্যক্তিগত নির্মাণাধীন ভবনের পিলার করা হচ্ছে। গাদিঘাট গ্রামের মো. মান্নান মুক্তার সেতুর সামনে মাটি ভরাট ও তার চাচাত ভাই শহিদুল তালুকদার সেতুর রেলিংসহ সড়ক দখল করে ভবন নির্মাণ করছেন। তারা প্রভাবশালী হওয়ায় এলাকায় প্রকাশ্যে কেউই মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেন না।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, গাদিঘাট বাজারের সামান্য পূর্ব দিকে ব্যস্ততম পাকা সড়কটির তালুকদার বাড়ির সামনে সেতুর উত্তর পাশে মাটি ভরাট করা হয়েছে। এতে বর্ষার পানি চলাচলে বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে। এছাড়া সেতুর একই পাশে সড়কের জায়াগা ও সেতুর রেলিং দখল করে একটি পাকা ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। দেখা যায়, এতে মালবাহী যানবাহন সেতু পারাপারে অনেকটাই ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। জানা গেছে, গাদিঘাটের মিয়াজ উদ্দিন তালুকদারের পুত্র মো. মান্নান মুক্তার সেতুটির মুখ আটকিয়ে মাটি ভরাট করেছেন। এছাড়া ইয়াজউদ্দিনের পুত্র শহিদুল তালুকদার একটি ভবন নির্মাণের জন্য সড়কসহ সেতুর রেলিং পর্যন্ত দখল করছেন। 
স্থানীয়রা জানায়, মান্নান মুক্তার সেতুটির সামনে ভরাট করায় নৌকা চলাচলের এই পথ দিয়ে এলঅকার কৃষকরা আড়িয়াল বিলে নৌকা নিয়ে যেতে পারছেন না। কৃষি কাজেকর্মে বিলে যেতে হলে অনেক পথ ঘুরে তাদের যেতে হচ্ছে। এছাড়া পানি চলাচলের পথ বন্ধ থাকায় এখানকার কৃষি জমি জমিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হবে। এনিয়ে তারা দুশ্চিন্তায় ভোগছেন। এলাকাবাসী আরো জানায়, মান্নান মুক্তারের চাচাত ভাই শহিদুল রাস্তাসহ সেতু ঘেষে বিল্ডিং নির্মাণ করছেন। 
শহিদুল তালুকদারের কাছে সেতুর রেলিং ষেষে ভবনের পিলার নির্মাণ সমন্ধে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত থেকে আমার জায়গা মেপে দিয়ে গেছেন। তিনি দাবি করেন সেতুর মাঝখান পর্যন্ত তার বসতবাড়ির সীমানা। তাই তিনি সড়কের অতিরিক্ত জায়গাসহ সেতু ঘেষে পিলার নির্মাণ করছেন। সেতুর মুখ বন্ধ করে মাটি ভরাটের বিষয়ে জানতে মো. মান্নান মুক্তারের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি। 
একটি সূত্র জানায়, শহিদুল তালুকদার ও মান্নান মুক্তার এলাকায় প্রভাবশালী তাই কেউ তাদের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে চান না। তারা স্থানীয় আমিন ডেকে নিজেদের জায়গা জমি পরিমাপ করে গুরুত্বপূর্ণ সেতু ভরাট ও দখল করে ভবন নির্মাণ করতে পারেন না! ঈানি নিস্কাশন ব্যবস্থা বন্ধ থাকায় শত শত কৃষি জমি জলাবদ্ধের আশঙ্কায় কৃষকরা দুশ্চিন্তায় পড়েছে। এছাড়া সেতুর এ্যাপ্রোচ, রেলিংসহ সড়ক দখল করে ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। তাদের এ ধরনের কর্মকান্ডে এলাকাবাসী হতাস। 
এ ব্যাপারে শ্রীনগর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী অফিসার ব্যারিস্টার মো. সজিব আহম্মেদ জানান, ইতি মধ্যেই সার্বেয়ারকে সরেজমিনে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি জানার পরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
 

এই বিভাগের আরো খবর