শুক্রবার   ২৩ জুলাই ২০২১

সর্বশেষ
শ্রীনগরে আর্থিক কষ্টে মৃৎশিল্পীরা সিরাজদিখানে হাজারো মানুষের ভরসা বাঁশের সাঁকো টঙ্গিবাড়ী উপজেলা ছাত্রদলের পক্ষ থেকে চলছে দোয়া ও বৃক্ষরোপন কর্মসূচী ঝুঁকি নিয়েই ঢাকায় ফিরছে মানুষ উৎসবানন্দে নিঃশঙ্ক চিত্ত জেলার সর্ববৃহৎ বালিগাঁও বাজারে মানুষের উপচে পরা ভির মে পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হতে পারে ৫০ হাজার মানুষ জেলায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমিত মুন্সীগঞ্জে চঙ্গ তৈরি করার কারনে পুরো একটি গ্রামের নাম পরিবর্তন কোভিড-১৯ মোকাবেলা চ্যালেঞ্জিং, তবে অসম্ভব নয় - মোঃ শফিকুল ইসলাম জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেবা দিচ্ছেন সংবাদকর্মীরাঃ মৃনাল কান্তি দাস প্রকৃত জনপ্রতিনিধি হিসেবে প্রতীয়মানের এখনই সুযােগঃআবু বকর সিদ্দিক শ্রীনগরে নার্সারীতে বাহারী আমের বাম্পার ফলন বসল পদ্মা সেতুর ২৯তম স্প্যানঃ দৃশ্যমান ৪ হাজার ৩৫০ মিটার করোনা ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছে যে সকল গণমাধ্যমকর্মীরা.. জেলার ৭৪টি হিমাগার ৪০ ভাগ ফাঁকা-৮০০ কোটি টাকা লোকসানের শঙ্কা ধেয়ে আসছে কালবৈশাখী ঝড় মুন্সীগঞ্জে বর্ষা মৌসুম সামনে রেখে চলছে চাঁই তৈরীর ধুম ২ মিনিটেই মারা যাবে করোনা ভাইরাস নজরদারি বৃদ্ধি করতে বলা হয়েছেঃ পৌর মেয়র বিপ্লব মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কঠোর নির্দেশনা ৯৮ সালে প্রলয়ংকারী বন্যা মোকাবেলার দৃষ্টান্ত তুলে ধরলেনঃমহিউদ্দিন মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার প্রতিদিন জীবানু নাশক পনি ছিটান অব্যাহত গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মারা যাওয়া সবাই ঢাকার আড়িয়ল বিলের মিষ্টি কুমড়া সবচেয়ে সেরা জেলা শহরের বিভিন্ন সড়ক ফাঁকা মুন্সীগঞ্জে আওয়ামী লীগসহ প্রশাসনের নানা আয়োজন মধুচাষে লোকসান টঙ্গীবাড়ীতে ১০০ ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে মেধাবৃত্তি প্রদান টিসিবি`র পিয়াজ বিক্রি করতে হেলমেট পরতে হয় না
৮০

মেয়েকে থাপ্পড় মারার প্রতিশোধ নিতে খুন

প্রকাশিত: ১২ জুন ২০২১  

নিজস্ব প্রতিবেদক-

জেসমিন আক্তারের ছয় বছরের শিশুসন্তান লিজাকে থাপ্পড় মেরেছিলেন নিকিতা আক্তার (৪২)। এর প্রতিশোধ নিতেই ফুপু নিকিতাকে বঁটি দিয়ে কুপিয়ে ও শিল দিয়ে মাথায় আঘাত করে হত্যা করে জেসমিন। হত্যার দায় স্বীকার করে সে  শুক্রবার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। শিশুসন্তানসহ জেসমিনকে কারাগারে পাঠানো হয়। বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর গুলশানের কালাচাঁদপুরের বাসা থেকে নিকিতার রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। হত্যায় জড়িত সন্দেহে জেসমিনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে সে ফুপুকে হত্যার কথা স্বীকার করে। গুলশান থানার ওসি আবুল হাসান বলেন, জেসমিন একাই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে বলে স্বীকার করেছে। তার বিরুদ্ধে নিকিতার ভাই আজাদ হোসেন বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেন। ওই মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে গতকাল আদালতে হাজির করা হলে সে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। এজাহারে বলা হয়েছে, কালাচাঁদপুরের টিনশেডের ভাড়া বাসায় গত ঈদুল ফিতরের পর থেকে একাই বাস করতেন নিকিতা আক্তার। তার স্বামী হৃদয় হাসান মুরাদ শেরপুরের বাগলগড়ে গ্রামের বাড়িতে ছিলেন। গত ৫ জুন নিকিতার ভাইয়ের মেয়ে জেসমিন আক্তার দুই সন্তানসহ ফুপুর বাসায় বেড়াতে আসে। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার পর থেকে নিকিতাকে ভাই আজাদ হোসেন একাধিকবার ফোন করেন। কিন্তু ফোন রিসিভ না করায় আজাদ হোসেন নিকিতার বাসায় গিয়ে কলিংবেল চাপেন। সাড়া না পেয়ে জেসমিনকে ফোন করেন তিনি। এ সময় আজাদকে অশ্নীল ভাষায় গালাগাল করে জেসমিন। নিকিতাকে হত্যা করা হয়েছে জানিয়ে সে বলে, লাশ রেখে সে বাসা থেকে বের হয়ে গেছে। এজাহারে উল্লেখ করা হয়, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে জেসমিনের বড় মেয়ে সুমনা বাসার মেঝেতে পানি ফেলে দেয়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে নিকিতা শিশুটিকে থাপ্পড় মারেন। এ নিয়ে জেসমিনের সঙ্গে নিকিতার কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে জেসমিন শিল দিয়ে নিকিতার মাথার পেছনে আঘাত করে। মেঝেতে পড়ে গেলে বঁটি দিয়ে নিকিতাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। মামলার বাদী ও নিহতের ভাই আজাদ হোসেন বলেন, তার বোনের প্রথম বিয়ে বিচ্ছেদের পর মুরাদের সঙ্গে দ্বিতীয় বিয়ে হয়। পারিবারিক কাজে মুরাদ গ্রামের বাড়িতে আছেন কিছুদিন ধরে। জেসমিন বেড়াতে এসে তুচ্ছ ঘটনায় হত্যাকাণ্ড ঘটাল।

এই বিভাগের আরো খবর